বহু বছর ধরে, বাঙালীরা তাদের আত্মীয়-স্বজন এবং বিবাহের ঘটকদের মাধ্যমে তাদের পুত্র-কন্যাদের বিয়ের জন্য পাত্র-পাত্রীর সন্ধান করতেন । তারপর এলো সংবাদপত্রের মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দিয়ে খোঁজার চল। অতি সম্প্রতি, বিভিন্ন ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে পাত্র-পাত্রীরা নিজে বা তাদের পরিবারের সদস্যরা মিলে খোঁজ করে থাকেন, আর এই ওয়েবসাইট গুলোকেই আমরা ম্যাট্রিমোনিয়াল ওয়েবসাইট বা বিবাহের জন্য ওয়েবসাইট হিসেবে জানি ।

এই ওয়েবসাইটগুলি তরুণ বাঙালীদের মধ্যে জীবন সঙ্গী সন্ধানের একটি বৃহৎ চিত্র তুলে ধরে । তাদের প্রোফাইলগুলির বিশদ বিশ্লেষণ করে বিবাহ, প্রেম এবং ছেলে ও মেয়ে উভয়ের ভূমিকায় পরিবর্তন ও তাদের ধারণার ব্যাপারে বেশ অসাধারণ অন্তর্দৃষ্টি দেয় । ব্যক্তিগত তথ্য সম্বলিত লক্ষ লক্ষ প্রোফাইল ইন্টারনেটের মাধ্যমে সবাই দেখতে পাচ্ছে – এটা প্রমাণ করে যোগাযোগ মাধ্যম, সামাজিক মাধ্যম এবং গণমাধ্যমের  ভূমিকা কতটা গুরুত্বপূর্ণ । মিডিয়া অত্যন্ত ব্যক্তিগত একটি ডোমেইন হয়ে বিশদ সামাজিক পরিবর্তনের অংশ হয়ে গিয়েছে ।

অনেকে মনে করেন, ম্যাট্রিমোনিয়াল সাইট গুলো অনেকটা সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল এর মতোই । কারণ অবশ্য যুক্তিযুক্ত বটে । এখানে নিজের বা যিনি পাত্র বা পাত্রী তার ব্যাপারে সব ধরণের তথ্য দিতে হয় । তার উচ্চতা থেকে শুরু করে ধর্মীয় মতাদর্শ,  শিক্ষাগত যোগ্যতা, জীবন সঙ্গী হিসেবে কেমন মানুষ পছন্দ, পারিবারিক বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য সহ আরো কিছু খুঁটিনাটি বিষয় যা না জানলেই নয় ।

ওয়েবসাইট গুলো আরো কয়েক বছর আগে যেমনি থাকুক, এখন এগুলো অনেকটাই ইউজার-ফ্রেন্ডলি হয়েছে । তাই তো এখন পাত্র বা পাত্রীর মা-বাবার অনায়াসেই সাইট গুলোতে প্রোফাইল খুলে তথ্য দিতে পারছেন, সেখানে এ যুগের ছেলে-মেয়েদের কথা বলাই বাহুল্য, কেননা তারা তো সব ধরণের প্রযুক্তিতে অভ্যস্ত ।

পারিবারিক বিবাহের অনলাইন রূপ

আমাদের দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলে পারিবারিক ভাবে বিবাহের চল এখনো বহুল প্রচলিত । তবে অনলাইন ম্যাট্রিমোনিয়াল সাইট এর যুগে, এটি ঘটে একটু ভিন্ন আঙ্গিকে । সাইট গুলোতে পাত্র/পাত্রীর প্রোফাইল তাদের মা বাবারাই তৈরী করে থাকেন নিজের ছেলে বা মেয়ের সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য দিয়ে । এটা অনেকটা পত্রিকায় পাত্র-পাত্রী সন্ধানের বিজ্ঞাপনের মতোই । অনেকে বিশের কোঠার মাঝামাঝি তে গিয়ে মনে করেন যে, বাবা-মায়ের সিদ্ধান্ততেই বিয়ে করবেন, তাদের জন্য ম্যাট্রিমোনিয়াল সাইট গুলো অনেক সহযোগী হয় ।

নিজেই নিজের সঙ্গী খোঁজার মাধ্যম

পশ্চিমা দেশের ডেটিং এপ গুলোর মতো ম্যাট্রিমোনিয়াল সাইট গুলোতে অনেকেই নিজের সঙ্গীকে খুঁজে পেয়েছেন, তবে তা গড়িয়েছে পরিণয়তে, অর্থাৎ বিয়েতে । এক্ষেত্রে পাত্র বা পাত্রী সন্ধানীরা নিজেরাই নিজেদের প্রোফাইল বানিয়ে আপলোড করেন ।  সোশ্যাল মিডিয়া সাইট গুলোর মতো নিজের সম্পর্কে অনেক রকমের তথ্য দেন যেগুলা ওয়েবসাইট এর এলগোরিদম অনুযায়ী তার সাথে মাইল এমন মানুষের সাজেশনে আসবে ।

বর্তমানে ম্যাট্রিমোনিয়াল সাইট গুলো অনেক বড় সহায়ক হিসেবে কাজ করছে বিবাহের ক্ষেত্রে । গ্লোবালাইজেশন এর এই যুগে যখন দেশের অনেকেই বিদেশ পাড়ি জমান, বিশেষ করে তাদের জন্য স্বদেশী কাউকে খুঁজে পেতে ম্যাট্রিমোনিয়াল সাইট গুলোর জুড়ি মেলা ভার ।